অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা উপায় - আপনার সেবা

শুক্রবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সেরা উপায়

যারা সহজে অ্যাপ থেকে ইনকাম করতে চাইছেন তাদের জন্য আজকের আর্টিকেলটি না।


প্রথমে একটু সহজ ধারনা নিয়ে নিই

 


 
ফ্রিলান্সিং করে রোজকার (Freelance Income)
স্টক মার্কেট ইনকাম (Stock Market Trading)
ইউটিউব থেকে ইনকাম (Earning From YouTube)
ফেসবুক থেকে টাকা  (Earning From Facebook)
ডোমেন কেনাবেচা (Domain Parking Business)
আর্টিকেল লেখা (Earning From Article Writing)
ব্লগিং করা (Online Blogging)
অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং (Affiliate Marketing )
স্টার্ট আপ করে ইনকাম (Product Startup )
ডিজিটাল স্টোরে ইনকাম (Digital Store )
ইনস্টাগ্রাম থেকে ইনকাম (Earn From Instagram)

ফ্রিলান্সিং করে ইনকাম (Freelance Income)

এটা বিশেষ কিছু নয়। ইন্টারনেটে অনেক Website আছে যেগুলো তে প্রচুর মানুষ কাজ দেয় তার পরিবর্তে আপনাকে তারা টাকা দেবে । ধরুন আপনি কোনও বিষয়ে পারদর্শী, যেমন ধরুন ভিডিও এডিটিং করতে পারেন।

আবার আর একজন এই এডিটিং পারেনা বা পারলেও তার হাতে সময় কম।তাই সে কিছু Popular Freelancing Website এ গিয়ে তার কাজ বা তার প্রোজেক্টটির জন্য Freelancer খোঁজে।

যদি সেসব Freelancing Website-এ আপনার প্রোফাইল থাকে তো সেই অনুযায়ী তারা আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবে তার কাজটির জন্য এবং আপনি তাতে রাজি থাকলেটা আপনার চার্জ অনুযায়ী ডিল করতে পারেন।

এক্ষেত্রে যারা প্রথম শুরু করছেন তাদের একটু অসুবিধা হয় কারন তাদের Portfolio প্রথমে সেইভাবে তৈরি হতে সময় লাগে।তবে বন্ধু,ডেডিকেশন থাকেলে আপনিও ফ্রিলান্সিং করে অনেক টাকা উপার্জন করতে পারেন।

এখানে পপুলার কিছু Freelancing Website-এর নাম দিলাম

Fiverr
Upwork
PeoplePerHour
Aquent
Writer Access
TaskRabbit
Skyword
FlexJobs
 
শেয়ার মার্কেট ইনকাম(Stock Market Trading)

Stock market বা  share market থেকেও অনেক সহজে money earn করা যায়।এক্ষেত্রে আপনাকে প্রথমে কিছু invest করতে হবে shareকেনার জন্য।

share market এ বিভিন্ন company বিভিন্ন দরে তাদের শেয়ার বিক্রি করে এবং আপনি কম দামে সেসব কিনে বেশি দামে বিক্রি করে অনেক টাকা উপার্জন করতেই পারেন।

তবে এক্ষেত্রে প্রথম যখন আপনি শুরু করবেন তখন আপনি লস খেতে পারেন সেজন্য আগে কয়েক মাস ভালো করে লক্ষ্য করুন এবং একটু অভিজ্ঞতা হলে বড় শেয়ার এ টাকা investকরতে পারেন।

ইউটিউব থেকে ইনকাম (Earning From YouTube)
ইউটিউব থেকে ইনকামের ব্যাপারে জানেনা এরকম মানুষ খুব কম আছে এই অনলাইন দুনিয়ায়। ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে চাইলে কি করতে হবে আপনাকে ? না চ্যানেল খুলতে হবেনা ওটা পরের কাজ ,

প্রথমে আপনাকে কি নিয়ে ভিডিও বানাবেন সেটা ভাবতে হবে এক্ষেত্রে বলব আপনার ইন্টারেস্ট যেখানে সবচেয়ে বেশি ওটা নিয়ে কাজ শুরু করুন ।

টপিক বাছার পর ভালো পছন্দ মতো নাম দিয়ে চ্যানেল খুলে ভালো ভালো ভিডিও পোস্ট করতে হবে ।এখানে বলে দেওয়া ভালো আপনাকে ভিডিও দিয়ে যেতে হবে নিরাশ হবার কোনো জায়গা নেই।

তারপর ১০০০ সাবস্ক্রাইবার আর ৪০০০ ঘণ্টা ওয়াচটাইম পুরন হলে মণিটাইজেশন বা অ্যাড দেখানোর জন্য গুগল অ্যাডসেন্স এর নামক বস্তুটিতে অ্যাকাউন্ট খুলে আবেদন করতে হবে।

এরপর আপনার Youtube Channel Monetization অন হলে আপনি ইনকাম শুরু করতে পারবেন। এরপর নিয়মিত ভিডিও দিতে হবে Google AdSense ইনকাম বাড়ানোর জন্য

ফেসবুক থেকে ইনকাম (Earning From Facebook)
ফেসবুক থেকে ইনকাম করার কথা বললে আপনি অনেকভাবে করতে পারবেন আপনার দরকার হবে audience এর জন্য আপনাকে একটি পেজ তৈরী করতে হবে।

ফেসবুক পেজ থেকে ইনকাম করতে গেলে আপনাকে  নিয়মিত পেজের পোস্ট করতে হবে যাতে পেজের রিচ বাড়ে এবং আপনি  অনেক ভাবে ইনকাম করতে পারবেন। যেমন কোনো ইউটিউব চ্যানেল প্রোমোটে করে বা নিজে ভিডিও বানিয়ে বা রিসেলিং করে ইনকাম করতে পারবেন।

ডোমেন কেনাবেচা (Domain Parking Business)

প্রথমে যারা জানেন না Domain জিনিসটা কি?

তাদের বলব প্রত্যেকটা Website এর Url টা খেয়াল করে দেখাবেন শেষে '.com' বা '.org' বা '.us' বা '.net' বা '.xyz' থাকে

যেমন- এই www.banglate.info ওয়েবসাইটটির ডোমেইন '.info' শেষে রয়েছে। এই প্রত্যেকটিকে এক একটি Domain বলে,যেগুলো আবার কিছু দেশ এর ক্ষেত্রে বিশেষ বিশেষ হয়।

ডোমেইন কেনার জন্য ভালো ভালো কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে ,যেমন-

GoDaddy
BigRock
Hostinger
HostGator
Namecheap
SiteGround
 
এখন গল্পের মতো করে বললে- আপনি একটি ভালো নামের ডোমেইন কিনে রেখে দিলেন

পরে যখন কারুর ঐ ডোমেইনটি পছন্দ হবে বা কোন বিশেষ কারণে কেনার প্রয়োজন হবে তখন সে আপনার সঙ্গে রফা করে কিনবে,আপনি আপনার দাম অনুযায়ী সেটি বিক্রি করতে পারেন।

কম পয়সায় একটি Domain কিনে আপনি তা হাজারগুন বেশি দামে বিক্রি করতে পারবেন।

Ideaটা শুনে সেরকম মনে না হলেও Domain Parking Business অনলাইন ইনকামের একটা বিশাল ক্ষেত্র।

আর্টিকেল লিখে ইনকাম (Earning From Article Writing)
এক কথায় বললে এই যেটা আপনি পড়ছেন এটাকে আর্টিকেল বলে বা অনলাইনে যেসব নিউজ পড়েন সেগুলো এক একটা আর্টিকেল।

অনেক বড় বড় Website থাকে যেখানে প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে লেখার জন্য Content Writer থাকে এগুলো মূলত তারা দুইভাবে করে-

প্রথমে, যেটা পড়লেন ফ্রীলান্সিং করে ইনকাম ,অনেকে যারা লিখতে ভালবাসেন বা খুব ভালো লিখতে পারেন তাদের কে ঐ বড় ওয়েবসাইট থেকে চুক্তি করা হয় টাকা হিসেবে

দ্বিতীয়ত, কিছু জন থাকে যাদের পার্মানেন্ট হিসাবে রাখা হয় কন্টেন্ট রাইটিং এর জন্য।

ব্লগিং করে ইনকাম (Online Blogging)
Online Blogging এর সীমানা এক প্রকার নেই বললেই চলে।সহজ ভাবে বললে আপনি ওয়েবসাইট বানিয়ে তাতে লেখালিখি করে তাতে Google AdSense থেকে ইনকাম করতে পারেন।

তাহলে যে প্রশ্নটা ভাবছেন -'ওয়েবসাইট বানানো যায় কিভাবে ?'

ভালো ওয়েবসাইট বানাতে গেলে প্রথমে আপনাকে Domain, Hosting, Theme এসব কিনতে হয় ।যদি আপনি Free Website বানাতে চান তার জন্য উপায় আছে।

প্রথমে দরকার ওয়েবসাইট বাননোর জন্য প্লাটফর্ম। মুলত ওয়েবসাইট বাননোর জন্য দুটি Popular প্লাটফর্ম
    ব্লগার [Blogging]
   ওয়ার্ডপ্রেস [Wordpress]
Free Website এর জন্য blogger এ একটি website খুলে তাতে আর্টিকেল লিখতে হয় এবং তাতে নিয়মিত লেখার পর ৬/৭ মাস পর Google আপনার সাইটকে অ্যাড এর জন্য Google AdSense Monetization অন করে।

এই অ্যাড -মণিটাইজেশন-অ্যাডসেন্স এগুলো মাথায় না ঢুকলে আমার আর্টিকেলগুলো পড়তে থাকুন খুব সহজে বুঝতে পারবেন ।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ইনকাম (Affiliate Marketing )
সহজ কথায় বললে কারুর কোন জিনিসকে আপনি বিক্রি করতে পারলে সেই বিক্রি বাবদ সে আপনাকে কিছু কমিশন দেয়, সেই কমিশন থেকে ইনকামকে affiliate marketing বলে।

ধরুন আপনি amazon থেকে একটি সাইকেল পছন্দ করলেন যার দাম ৫ হাজার টাকা। সেই সাইকেলটির জন্য amazon আপনাকে একটি বিশেষ লিঙ্ক দিল এবং ঐ লিঙ্কটি আপনি আপনার Facebook,Youtube বা Websiteএ দিয়ে পোস্ট করলেন ।

যে ঐ লিঙ্ক থেকে ক্লিক করে অ্যামাজন এ গিয়ে সাইকেলটি কিনল বা সে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অন্য কোনো জিনিস কিনল, আপনি তার জন্য কমিশন পাবেন । Online দুনিয়ায় সবচেয়ে বেশি যে তিনটি affiliate Programme সবচেয়ে বেশি চলে-

Clickbank Affiliate Program
Amazon Affilite Marketing Program
Shopify Affilite Marketing Program
 
স্টার্ট আপ করে ইনকাম (Product Startup )
সোজা কথায় আপনার কোন ব্যাবসা অনলাইনে শুরু করতে পারেন এবং সেক্ষেত্রেও আপনি টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

আপনার যদি নিজস্ব কোনো কিছু করার থাকে তো আপনি আপনার পছন্দ মতো কোন জিনিস অনলাইনে স্টোরে খুলে বিক্রি করতে পারেন সেটা আপনার বানানো কোনো জিনিস থেকে শুরু করে যে কোনো প্রোডাক্ট হতে পারে।
 
এক্ষেত্রে আপনি Facebook Ads, Google Ads, Youtube Ads সব কিছু করতে পারবেন আপনার পছন্দ অনুযায়ী। এ থেকেও আপনার Customer অনুযায়ী টাকা ইনকাম করতে পারবেন।


ডিজিটাল স্টোরে রোজকার (Digital Store )

এই ডিজিটাল স্টোরে ইনকাম জিনিসটা অনেকটাই আগের টার মতো আপনাকে এক্ষেত্রে অ্যামাজন এর মতো  e-commerce website বানিয়ে তাতে প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারেন

ইনস্টাগ্রাম থেকে টাকা (Earn From Instagram)

Instagram থেকে income এর বাপারেও অনেকেই জানে।অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় অনেক বড় বড় celebrityদের অনেক product এর পোস্ট তাদের Instagram Idতে শেয়ার করতে।এর  বিনিময়ে তারা অনেক টাকা উপার্জন করে।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন আসবে আপনি তো আর celebrity নন ।এক্ষেত্রে বলব চেষ্টা করুন আপনার instagram followers বাড়াতে ।

এর ফলে অনেক ছোট ছোট যেসব Brand আছে অনেক সময় তাদের অত টাকা থাকেনা বড় বড় celebrityদের চার্জ অনুযায়ী দেওয়ার মতো কিন্তু তারা কম পয়সায় অনেক লোকের কাছে পৌঁছাতে চায় । এক্ষেত্রে আপনার chance অনেক বেড়ে যাবে।

আর আপনি যদি ভাবেন বড় বড় ব্রান্ড এর কথা তাহলে বন্ধু এটা বলব ছোট থেকেই মানুষ বড় হয় তাই আপনি ছোট ছোট brand promotion করতে থাকলে বড় ব্রান্ড ও আসবে আস্তে আস্তে। ধৈর্য রাখা টাই সবচেয়ে বড় কাজ।

সবশেষে ,
এই সুবিশাল অনলাইন দুনিয়ায় আপনি আরও বহু পদ্ধতিতে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। তবে সব ক্ষেত্রে একটাই নিয়ম আপনাকে কাজ করে জেতেই হবে যে কাজ টা আপনার আজ কঠিন লাগবে কাল সেটা খুব সহজ হয়ে যাবে কখনো হাল ছেড়ে দেবেন না আপনার Motivation আপনি নিজেই ।


কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন


আপনিও লেখক হতে পারেন । আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া যেকোনো ঘটনা, ভ্রমণ অভিজ্ঞতা, ক্যাম্পাসের খবর, তথ্যপ্রযুক্তি, বিনোদন, শিল্প-সংস্কৃতি ইত্যাদি বিষয়ে লেখা পাঠান: apanarseba@gmail.com ই-মেইলে।