ত্বকের স্থায়ী সৌন্দর্য ও ত্বক ভাল আনে যে ৫টি ফল - আপনার সেবা

বুধবার, ৬ নভেম্বর, ২০১৯

ত্বকের স্থায়ী সৌন্দর্য ও ত্বক ভাল আনে যে ৫টি ফল

ত্বক সুন্দর রাখতে আমরা কত কিছুই না করে থাকি। নামিদামি ব্রান্ডের প্রসাধনী থেকে শুরু করে আরো কত কিছুর ব্যবহার করতে হয় প্রতিদিন। এসবে স্বল্প সময়ের জন্য ত্বকের উজ্বলতা আসলেও নির্ধারিত সময় পর আবার সেই মলিত ত্বক। তাই ত্বকের স্থায়ী উজ্বলতা ধরে রাখতে পাল্টাতে হবে দৈনন্দিন জীবনধারা। পরিবর্তন আনতে হবে খাদ্য তালিকায়।
https://www.apanerseba.com/2019/11/briteness-skin-care.html

ফল খাওয়ার উপকারিতা কম-বেশি আমরা সবাই জানি। দেহের পুষ্টির চাহিদা মেটানোসহ নানা উপকারে আসে এই ফল। বাজারে সারা বছরই দেশি-বিদেশী ফল পাওয়া যায়। নিয়মিত খাবার তালিকায় ফল রাখলে উপকারিতা পাcয়া যায়। আর এমন কিছু ফল আছে যা খেলে আপনার ত্বক স্থায়ী ভাবে সুন্দর আর উজ্বল হয়ে উঠবে। জেনেনিন তেমন পাঁচটি ফল সম্পর্কে যা আপনার আশেপাশেই পাওয়া যায়।

১. লেবু:
লেবুতে প্রচুর পরিমাণে বিটামন সি থাকে। এছাড়া প্রাকৃতিক ব্লিচিং এজেন্টর উপস্থিতিও রয়েছে এই লেবতেই। নিয়মিত লেবু খাওয়ার ফলে শরীরের টক্সিন দূর হয়। এছাড়া ত্বকের দাগ ছোপ দূর করতেও লেবুর রস ব্যবহার করতে পারেন।

২. কলা:
এটি বার মাসই দেশের বাজারে খুব সহজেই পাওয়া। কলায় অ্যামাইনো অ্যাসিড, পটাশিয়াম থাকার পাশাপাশি প্রচুর পানি থাকে। ফলে নিয়মিত কলা খেলে আপনার ত্বক হাইড্রেটেড থাকবে একই সাথে ব্রণের সমস্যাও কমে যাবে।

৩. পেঁপে:
প্রতিদিন ৬-৮ টুকরো পাকা পেঁপে খেলে ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরে পাবেন। পেঁপেতে ভিটামিন-সি, এ, ই এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা ত্বক সুন্দর রাখতে সাহায্য করে ও ত্বককে ব্রন ও দাগছোপ থেকে রক্ষা করে।

৪. আম:
সব মৌসুমে আম না পাওয়া গেলেও যে সময়টাতে আপ পাওয়া যায় সে সময়টাই কাজে লাগাতে পারেন। আমে রয়েছে প্রচুর পুষ্টি উপাদান। ভিটামিন এ, ই, সি এবং কে, ফ্ল্যাভোনয়েড, পলিফেনোলিকস, বিটা ক্যারোটিন এবং জ্যান্টোফিলে ভরপুর থাকে আম। আমের এই উপাদানগুলো ত্বককে ডিএনএ ড্যামেজ থেকে বাঁচায়।

৫. আপেল:
বারমাস পাওয়া যায় এমন আরেকটি ফল হলো আপেল। ভিটামিন এ, সি, ডায়েটারি ফাইবার, পট্যাশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম সমৃদ্ধ আপেলে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এসব উপাদান ত্বকের ফ্রি র‌্যাডিকেলস দূর ঝকঝকে ত্বক ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন


আপনিও লেখক হতে পারেন । আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া যেকোনো ঘটনা, ভ্রমণ অভিজ্ঞতা, ক্যাম্পাসের খবর, তথ্যপ্রযুক্তি, বিনোদন, শিল্প-সংস্কৃতি ইত্যাদি বিষয়ে লেখা পাঠান: apanarseba@gmail.com ই-মেইলে।