কি এমন চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন মুকেশ আম্বানি ভারতের অ্যামাজনকে - আপনার সেবা

বৃহস্পতিবার, ২ জানুয়ারী, ২০২০

কি এমন চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন মুকেশ আম্বানি ভারতের অ্যামাজনকে

ভারতের মুকেশ আম্বানি এ মূহুর্তে এশিয়ার সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি এবং তিনিই বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন শপ অ্যামাজনকে বড় ধরণের চ্যালেঞ্জের মুখে ফেললেন।

মিস্টার আম্বানির রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রি বলছে তারা গ্রোসারি ডেলিভারি সার্ভিসে সাইন আপ করার জন্য লোকজনকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে।

তারা মূলত ব্যবসার জন্য ভারতের বিশাল সংখ্যক মোবাইল ফোন গ্রাহককে টার্গেট করে এগুচ্ছে।

আর নতুন এই ই-কমার্স উদ্যোগ ভারতের বড় বড় অনলাইন শপগুলোর জন্য বিরাট চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

মিস্টার আম্বানির বিজনেস সাম্রাজ্যের দুই সহযোগী প্রতিষ্ঠান রিলায়েন্স রিটেইল ও রিলায়েন্স জিও বলছে, তারা যৌথভাবে নতুন উদ্যোগের সূচনা করেছে যার নাম হবে জিওমার্ট।

তারা বলছে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য বা গ্রোসারি পণ্যের ফ্রি ও এক্সপ্রেস ডেলিভারি সেবা দেবে তারা।

এ মূহুর্তে এ ধরণের অন্তত ৫০ হাজার পণ্য পাওয়া যাবে নতুন এই অনলাইন শপে।

আর জিওমার্ট গ্রাহকদের সাথে যোগাযোগ করবে অ্যাপের মাধ্যমে।

যদিও ভারতের অনলাইন গ্রোসারি মার্কেট এখনো খুব একটা জমে উঠেনি কারণ এখনো বছরে লেনদেনের পরিমাণ মাত্র ৮৭০ মিলিয়ন ডলার। আর জনসংখ্যার শূন্য দশমিক ১৫ভাগ এ ধরণের সেবা গ্রহণ করছে।

তবে বিশ্লেষকদের ধারণা, ২০২৩ সাল নাগাদ অনলাইন গ্রোসারি শপে বেচাকেনার পরিমাণ দাঁড়াবে প্রায় সাড়ে ১৪ বিলিয়ন ডলার।

দেশটির অনলাইন মার্কেট এখন মূলত নিয়ন্ত্রণ করছে অ্যামাজন আর ফ্লিপকার্ট।

তবে গত বছরের নতুন একটি আইনের কারণে এ ধরণের কোম্পানিগুলো কিছুটা হোঁচট খেয়েছে।
আর এটাই নতুন ভারতীয় কোম্পানির জন্য সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে।

মিস্টার আম্বানি এখন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান এবং তার সম্পদের পরিমাণ ৬০ বিলিয়ন ডলারের বেশি।

রিলায়েন্স রিটেইল গ্রোসারি শপ আছে যেমন তেমনি হুগো বস কিংবা বারবেরির মতো বিদেশী নামীদামী কোম্পানির আউটলেটও তারা পরিচালনা করে।

রিলায়েন্স জিও ভারতের দ্বিতীয় বৃহত্তম টেলিকম অপারেটর যার প্রায় ৩৬ কোটি গ্রাহক আছে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন


আপনিও লেখক হতে পারেন । আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া যেকোনো ঘটনা, ভ্রমণ অভিজ্ঞতা, ক্যাম্পাসের খবর, তথ্যপ্রযুক্তি, বিনোদন, শিল্প-সংস্কৃতি ইত্যাদি বিষয়ে লেখা পাঠান: apanarseba@gmail.com ই-মেইলে।